নিজস্ব প্রতিবেদকঃ নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান বলেছেন, ‘নারায়ণগঞ্জ আওয়ামী লীগের ঐক্যবদ্ধতা প্রমাণে আগামী ৩ ফেব্রুয়ারি শহরের আওয়ামী লীগ কার্যালয়ের সামনে বৃহৎ সমাবেশ করা হবে। সেখানে আমি সিটি করপোরেশনের মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভী, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবদুল হাই, মহানগরের সভাপতি আনোয়ার হোসেন, সেক্রেটারি খোকন সাহাসহ স্বাধীনতার স্বপক্ষের সবাইকে দাওয়াত দিলাম।’

শনিবার বিকেলে নারায়ণগঞ্জের ওসমানী স্টেডিয়ামে শামীম ওসমানের উদ্যোগে আওয়ামী লীগ ও এর সহযোগী সংগঠন, জনপ্রতিনিধিদের প্রস্তুতি সভায় সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন।

নিয়াজুল প্রসঙ্গে শামীম ওসমান বলেন, ‘পত্রিকায় খবর আসে নিয়াজুল নাকি পলাতক। কিন্তু সে পলাতক না। নিয়াজুল অসুস্থ, সে চিকিৎসা নিচ্ছে।’ ‘যারা নিয়াজুলের ওপর হামলা করেছে তাদের আগে ধরেন। নিয়াজুলকে ধরার চিন্তা কইরেন না। যাদের নামে অভিযোগ হয়েছে তাদের ধরা তো দূরের কথা মাথার চুলের আগা ধরলে আগুন ধরিয়ে দিব। আমি প্রশাসনকে বলছি ডাবল গেম করবেন না। আমার ধৈর্যের বাঁধ ভেঙে গেছে।’

তিনি বলেন, ‘আমি আইভীকে, বলবো অন্যদেরও বলবো যদি ভুল করে থাকেন স্বীকার করে সংশোধন হন। যদি জামায়াত বিএনপি দ্বারা ভুল পথে পটপরিবর্তন করে থাকেন সেটাও আলোচনায় বসে স্বীকার করে শেষ করেন।’

শামীম ওসমান আরো বলেন, ‘যারা বিগত বিএনপি সরকারের আমলে ৫০টা মামলা খেয়েছেন তাদের বিরুদ্ধে এখন হুদামিছা অভিযোগ করেছেন সেগুলো প্রত্যাহার করেন। বাঘ আর বিড়ালের পার্থক্য বুঝতে হবে। বাঘের ঘরে বাঘের জন্ম হয়।’

‘কেউ কেউ বলে এ সিটির মালিক তিনি। আমি বলবো না, এ সিটির মালিক জনগণ। শুধু সিটি না পুরো দেশের মালিক জনগণ। নারায়ণগঞ্জে আওয়ামী লীগ ছিল আছে ও থাকবে। এখানে অন্য কেউ কর্তৃত্ব দেখাতে পারবে না,’ যোগ করেন প্রভাবশালী এই নেতা।

শামীম ওসমান বলেন, ‘তিনি (মেয়র আইভী) যদি থাকেন তাহলে আমার সঙ্গে কোনো বিরোধ থাকবে না। কিন্তু মাঠে থাকবেন না আর আওয়ামী লীগের পরীক্ষিত নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মামলা করবেন সেটা হবে না।’

‘আগামীতে নারায়ণগঞ্জে বিএনপি-জামায়াত নাশকতার পরিকল্পনা করছে। ওরা ওদের সর্বশক্তি নিয়োগ করবে। তারা চায় লিংক রোড, সাইনবোর্ড, কাঁচপুর দখল করতে। কারণ এসব দখল করতে পারলে এক্সপোর্ট ইমপোর্ট বন্ধ হয়ে যাবে। তারা চায় আমাকে কাহিল করতে। কারণ আমাকে কাহিল করতে পারলে তারা সফলকাম হবে। কিন্তু এটা মনে রাখতে হবে এটা নারায়ণগঞ্জ। এখানে আওয়ামী লীগের জন্ম। এখানে আওয়ামী লীগ ছাড়া কেউ টিকতে পারবে না,’ বলেন শামীম ওসমান।

তিনি আরো বলেন, ‘আগামী ৮ ফেব্রুয়ারি বিএনপির চেয়ারপারসনের দুর্নীতির মামলার রায় ঘোষণা হবে। বিএনপি ধরেই নিয়েছে তাদের চোরের নেত্রীর কিছু একটা হবে। তখন কিন্তু জামায়াত বিএনপি সবাই নামবে। আগামী জুন-জুলাইতে দেশে অনেক অঘটন ঘটবে। কিন্তু আশা করি কিছুই করতে পারবে না।’

তিনি বলেন, ‘যারা স্বপ্ন দেখছেন আগামীতে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসবে না তারা বোকা। আগামীতে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসবে এবং শেখ হাসিনাকে আবারও প্রধানমন্ত্রী বানাতে হবে। এজন্যই আমাদের লড়াই।’