আদালত প্রতিনিধি: নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলার আলোচিত শিশু মাকসুদুল ইসলাম তুহিন(৭) হত্যা মামলায় পিতা পুত্রকে মৃত্যুদন্ড দিয়েছে আদালত। একই সঙ্গে লাশ গুমের অপরাধে ২০১ ধারায় প্রত্যেককে ৩ বছর করে সশ্রম কারাদন্ড ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো ৬ মাস করে কারাদন্ডের নির্দেশ দিয়েছে আদালত। এছাড়া প্রলোভন দেখিয়ে শিশুটিকে অপহরণ করার অভিযোগে ৩৬৪(ক) ধারায় ৭ বছরের সশ্রম কারাদন্ডের রায় ঘোষনা করেছেন।
দন্ডিতরা হলো-আড়াইহাজার উপজেলার বগাদি কান্দাপাড়া গ্রামের বিল্লাল হোসেন(৫৫) তার ছেলে মাহফুজুর রহমান(২৫)।
সোমবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জ প্রথম অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মোহাম্মদ আলী হোসাইন আসামীদের উপস্থিতিতে এরায় ঘোষনা করেন।
অতিরিক্ত পাবলিক প্রশিকিউটর এমএ রহিম এর সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আড়াইহাজার উপজেলার বগাদি কান্দাপাড়া গ্রামের  কাজী নাসির উদ্দিনের ছেলে দ্বিতীয় শ্রেনীর ছাত্র মাকসুদুল ইসলাম তুহিনকে গত ২০১৫ সালের ৯ মে সকাল সাড়ে ১০টায় বগাদি কান্দাপাড়া গ্রামের বাড়ির সামনে থেকে আম ভর্তা খাওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে  অপহরণ করা হয়।
পরের দিন মোবাইলে ফোন করে তুহিনের বাবা কাজি নাসিরের কাছে ২০ লাখ টাকা মুক্তিপন দাবী করেন। এরপর পুলিশ মোবাইল ট্রাকিং করে মাহফুজকে নরসিংদী থেকে ১২ মে গ্রেফতার করে। পরে মাহফুজ তার বাবা বিল্লাল হোসেনের ঘর থেকে নীল রঙের ড্রাম বন্দি তুহিনের লাশ উদ্ধার করে দেয়। ওইসময় পুলিশ বিল্লালকেও গ্রেফতার করে। বিল্লাল নিহত তুহিনের আপন চাচা।