কাকরাইল মসজিদে তাবলিগ জামাতের দুই পক্ষের মধ্যে মারামারির ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনার পর পুলিশ দুই পক্ষের নেতাদের মসজিদ থেকে সরিয়ে দিয়েছে।

শনিবার সকালে মাওলানা সাদ কান্দলভির অনুসারী ওয়াসিফুল ইসলাম এর পক্ষের সঙ্গে মাওলানা যুবায়ের হাসানের অনুসারি পক্ষের মধ্যে হাতাহাতি ও ধস্তাধস্তির ঘটনা ঘটে। বিশ্ব ইজতেমার সর্বশেষ পর্বে তাবলিগ জামাতের আমির নিয়ে সৃষ্ট দ্বন্দ্বের জেরে আজ দুই পক্ষের মধ্যে মারামারির ঘটনা ঘটে। তাবলিগ জামাতের কর্মীরা জানান, সকালে শুরা বৈঠক চলাকালে মাওলানা সাদ কান্দলভীর বক্তব্য প্রসঙ্গ তুলে দুই পক্ষ বিতন্ডায় জড়ান। পরে তা হাতাহাতিতে রূপ নেয়।

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে দিয়ে দুই পক্ষের নেতাদের সরিয়ে দিলে পরিস্থিতি শান্ত হয়। বৃহস্পতিবার রাত থেকেই বিবদমান দুই পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে। বিষয়টি মীমাংসা করতে ঢাকা মহানগর পুলিশ চেষ্টা করছে বলে কর্মকর্তারা জানিয়েছেন। এর আগে গত বছরের ১৪ই নভেম্বর কাকরাইল মসজিদে দুই পক্ষের মারামারির ঘটনা ঘটে।