স্টাফ রিপোর্টারঃ ফতুল্লার বনানী সিনেমা হলের টিকেট বিক্রেতা থেকে কোটিপতি বনে যাওয়া পোষ্ট অফিস রোড এলাকার রফিকুল ইসলাম টিপু ওরুফে বরিশাইল্যা টিপুর বিরুদ্ধে অভিযোগের অন্ত নেই। সরকারী-বেসরকারী ব্যাক্তি মালিকানাধীন ভূমি জবর দখলসহ অর্থ আত্মসাতের পর এবার ফতুল্লা ইউনিয়নের উন্নয়ন প্রকল্পের আওতাধীন দীর্ঘ ৫০বছরের ব্যবহৃত সরকারী রাস্তা দখল করে নিয়েছে বরিশাইল্যা টিপু। এ ঘটনায় একাধিকবার স্থানীয় বাসিন্দারা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানকে বিষয়টি লিখিত ভাবে জানালেও তিনি কর্ণপাত না করায় থানা সাধারন ডায়েরী করেছে স্থানীয় বাসিন্দা মো: শরীফ হোসেন। জিডি নং ২৭৪

স্থানীয় বাসিন্দারা জানায়, পোষ্ট অফিস রোডের পাশের জয়নগর ষ্টীল মিল ও সালাসা টেক্সটাইল মিলের মাধ্য দিয়ে বয়ে যাওয়া রোড দীর্ঘ অর্ধশত বছরেরও বেশী সময় স্থানীয়রা ব্যবহার করে আসছে। চলতি বছরের শুরুর দিকে সরকারী এই রাস্তাটি রাতের অন্ধকারে গেইট সাটিয়ে বন্ধ করে নিজ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের কাজে ব্যবহার করে আসছে। এই রাস্তা দখলের সময় এলাকাবাসী প্রতিবাদ জানালেও বরিশাইল্যা টিপু কারো কথা না শুনে নিজের মতো করে রাস্তা দখলে নিয়ে নেয়। এ ঘটনায় গত ৮ জানুয়ারী বন্ধ রাস্তা খুলে দেয়ার দাবিতে এলাকাবাসী স্থানীয় চেয়ারম্যানের বরাবর লিখিত অভিযোগ দেয়। কিন্তু রহস্যজনক কারনে চেয়ারম্যান এর কোন সুরাহা করেনি। এতে করে টিপু আরো বেপরোয়া হয়ে ওঠে। রাস্তা বন্ধের ঘটনায় প্রতিবাদ করায় একই দিনে দেলোয়ার হোসেন দেলুকে বরিশাইল্যা টিপু তার ভাই সাপ্পু, ভাগ্নে রায়হান,রাজিবসহ বেশ কিছু ভাড়াটে সন্ত্রাসী দেলোয়ারের উপর ধারালো অস্ত্র নিয়ে হামলা চালিয়ে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা চালায়।

এসময় দেলোয়ারের ডাকচিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে আসলে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। এসময় স্থানীয়রা দেলোয়ার গুরুতর আহত অবস্থায় প্রথমে খানপুর ৩শ শয্যা হাসপাতালে ভর্তি করে পরে অবস্থার অবনতি ঘটলে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি। টিপুর বিরুদ্ধে ভূমিদস্যুতা, চেকজালিয়াতি, সন্ত্রাসী লালনসহ নানা অভিযোগ রয়েছে। এছাড়া তার সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের প্রতিবাদে এলাকাবাসী ঝাড়– মিছিলও করেছিলো। উল্লেখ্য, বরিশাইল্যা টিপু সাবেক এমপি কবরীর সময়ে নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সাংসদ সেলিম ওসমানের ফ্যাক্টরীতে হামলা চালিয়েছিলো বলেও অভিযোগ রয়েছে। এছাড়া তার বিরুদ্ধে বিএনপি-জামাতকে মদদ দেয়ারও অভিযোগ রয়েছে।