রাজধানীর উত্তরার আশকোনা এলাকায় হজক্যাম্পে র‌্যাবের অস্থায়ী কার্যালয়ে আত্মঘাতী বোমা হামলার দায় স্বীকার করেছে ইসলামিক স্টেট (আইএস)। আমাক ম্যাসেজিং অ্যাপ টেলিগ্রামের মাধ্যমে সংগঠনটির নামে এই হামলার দায় স্বীকার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে বিবিসি।

আইএসের সংবাদমাধ্যম হিসেবে পরিচিত আমাক-এ বলা হয়েছে, ঢাকায় র‍্যাব বাহিনীর একটি সামরিক ক্যাম্প লক্ষ্য করে একজন আত্মঘাতী বোমা হামলাকারী আক্রমণ চালিয়েছে। একজন যুবকের নিহত হওয়ার খবরও সংবাদমাধ্যমগুলোতে জানানো হয়েছে।

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডের দুটি জঙ্গি আস্তানায় অভিযানে চারজন নিহতের ঘটনার একদিন পর আজ শুক্রবার এ আত্মঘাতী বোমা হামলার ঘটনা ঘটে।

র‍্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক মুফতি মাহমুদ খান ঘটনাস্থলে উপস্থিত সাংবাদিকদের জানান, আশকোনার হজক্যাম্পের পাশেই অবস্থিত র‍্যাবের অস্থায়ী ক্যাম্প। ওই অস্থায়ী ক্যাম্পের নির্মাণকাজ চলছে। এখানে র‍্যাব প্রশাসনের কিছু লোকজন আর কিছু নির্মাণশ্রমিক থাকেন। ক্যাম্পের একটি মাত্র গেট। চারদিকে গ্রিল ও দেয়াল দিয়ে বাউন্ডারি দেওয়া। বাউন্ডারির একপাশে দুপুর ১টার দিকে একজন অপরিচিত লোককে হাঁটতে দেখে র‍্যাবের সদস্যরা তাঁকে চ্যালেঞ্জ করেন। এ সময় তিনি বোমার বিস্ফোরণ ঘটান। এতে ঘটনাস্থলেই হামলাকারী নিহত হন। এ সময় র‍্যাবের দুই সদস্য ল্যান্স করপোরাল মিজান ও কনস্টেবল আরিফ আহত হয়েছেন।

আহতদের সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আর হামলাকারীর দেহ বিস্ফোরণের কারণে ক্ষত-বিক্ষত হয়েছে বলেও তিনি জানান।

মুফতি মাহমুদ আরো জানান, বর্তমানে র‍্যাবের বোমা নিষ্ক্রিয়কারী দল ঘটনাস্থলে কাজ করছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, হামলাকারী কোনো জঙ্গি সংগঠনের সদস্য। তবে কোন সংগঠনের তা এখনই স্পষ্ট করে বলা যাচ্ছে না।

বিমানবন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নুরে আজম মিয়া জানান, আশকোনায় র‍্যাবের নির্মাণাধীন কার্যালয়ে এক ব্যক্তি দেয়াল টপকে ভেতরে ঢোকেন। এ সময় র‍্যাব সদস্যরা তাঁকে বাধা দিতে গেলে ওই ব্যক্তি নিজের শরীরে থাকা বোমার বিস্ফোরণ ঘটান।