নৌ-পরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান বলেছেন, বানিজ্যিক পার্ক ও ইকো পার্কের মধ্যে কোন পার্থক্য নেই। নারায়ণগঞ্জের শীতলক্ষ্যা নদীর তীরে বিআইডব্লিউটিএ’র জায়গায় যে পার্ক স্থাপন করা হয়েছে সেটিও ইকো পার্ক। তিনি বলেন, যারা এর বিরুদ্ধে কথা বলছেন তারা ভুল বলছেন। দেশের বিভিন্ন স্থানে এ ধরনের পার্ক গড়ে তোলা হবে বলেও তিনি জানান।

বৃহস্পতিবার বিকেলে নারায়ণগঞ্জ শহরের খানপুর বরফকল এলাকায় চৌরঙ্গী ফ্যান্টাসি ইকো পার্ক এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে নৌ-মন্ত্রী এ কথা বলেন।

তবে পার্কটির বিষয়ে স্থানীয় পরিবেশবাদিদের অভিযোগ, চৌরঙ্গী ফ্যান্টাসি পার্ক কোনো ইকো পার্ক নয়, এটি একটি বানিজ্যিক পার্ক । নদীর জায়গা দখল করে এ পার্ক অবৈধভাবে নির্মাণ করা হয়েছে।

এদিকে মন্ত্রীর অনুষ্ঠানের সময় বরফকল এলাকায় বিআইডব্লিউটিএ’র মালিকানাধীন বরফকল মাঠে বহুতল ভবন নির্মান না করে জনসাধারনের জন্য উন্মুক্ত রাখার দাবীতে এলাকাবাসি ও খেলোয়াড়রা মানববন্ধন করলে নৌ-মন্ত্রী বলেন, বিষয়টি বিবেচনাধীন রয়েছে।

নববর্ষ উপলক্ষে মঙ্গল শোভাযাত্রা সম্পর্কে বলেছেন, এটি আমাদের বাঙালী সংস্কৃতির ঐতিহ্য এবং সংহতির প্রকাশ। এর মাধ্যমে সরকার ধর্ম বর্ণ নির্বিশেষে সর্বস্তরের মানুষকে এক সাথে সমবেত হওয়ার সুযোগ সৃষ্টি করে দিয়েছে। যারা এর বিরোধিতা করছে তারা বাঙালী নয়।

অনুষ্ঠানে বিআইডব্লিউটিএর চেয়ারম্যান কমোডর মোজাম্মেল হক এর সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য এ কে এম সেলিম ওসমান, অতিরিক্ত জেলা পুলিশ সুপার(প্রশাসন) মোস্তাফিজুর রহমান, ক- সার্কেল এএসপি শরফুউদ্দিন, পার্কের সত্ত্বাধিকারী আব্দুস সাত্তার, চেম্বার অব কমার্স এর  সভাপতি শেখ হায়দার কাজল, বিআইডব্লিউটিএ’র নারায়ণগঞ্জ যুগ্ন পরিচালক আরিফ উদ্দিন, শ্রমিক কর্মচারি ইউনিয়নের সভাপতি আবুল হোসেন, ১২ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর শওকত হাশেম শকু, যুবলীগ নেতা চঞ্চল মাহমুদ, ছাত্রলীগ সভাপতি সাদ্দাম হোসেন জিতু প্রমূখ।