নারায়ণগঞ্জে ডাকাতির ঘটনায় জড়িত ৫ ডাকাতকে কুমিল্লা ও চাঁদপুরের বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে গ্রেফতার করেছে নারায়ণগঞ্জ জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। এ সময় ১টি মোবাইল, ৩ ভরি স্বর্নালঙ্কার ও নগদ ২০ হাজার টাকাও উদ্ধার করা হয়।

ডিবির উপপরিদর্শক (এসআই) মফিজুল ইসলাম নেতৃত্বে তাদের একটি দল শুক্রবার (১৪ এপ্রিল) গভীর রাতে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করে। গ্রেফতারকৃতরা হলেন- কুমিল্লা জেলার দাউদকান্দি থানার তুজারভাঙ্গা গ্রামের মৃত মন্টু মিয়ার ছেলে সোহাগ (২৫), একই থানার সাতপাড়া গ্রামের আব্দুল হাকিমের ছেলে জুয়েল রানা (২৮), একই থানার উত্তর সতানন্দি গ্রামের আব্দুর রশিদ মেম্বারের ছেলে সোহেল (৩০), সতানন্দি গ্রামের হরিপদ সরকারের ছেলে রঞ্জিত সরকার (৩২) এবং দক্ষিণ সদর থানার মৃত লাল মিয়ার ছেলে ইউনুছ আলী (২৮)।

মফিজুল ইসলাম জানান, শুক্রবার রাতে ডাক্তার উম্মে আছমা সাকি ও তার স্বামী ডাক্তার মো. আশফাক দেলোয়ার ১ বছরের শিশু সন্তানকে নিয়ে প্রাইভেটকারে করে ঢাকা থেকে চট্রগ্রাম যাচ্ছিলো। এ সময় নারায়ণগঞ্জ জেলার সোনারগাঁ থানাধীন পুরান ত্রিপরদী এলাকার মধুমতি ফিলিং স্টেশনের সামনে পৌঁছালে অজ্ঞাতনামা ৯-১০ জন ডাকাত গাড়িটিকে গতিরোধ করে। তখন ধারালো অস্ত্র দিয়ে প্রাইভেটকারের গ্লাস ভেঙ্গে ওই শিশু সন্তানের গলায় ধারালো অস্ত্র ঠেকিয়ে ২৪ ভরি ওজনের বিভিন্ন স্বর্ণালঙ্কার, নগদ ২ লাখ টাকা, তাদের ব্যবহৃত ৩টি মোবাইল ফোনসহ বিভিন্ন জিনিসপত্র ডাকাতি করে নিয়ে যায়।

তিনি আরও জানান, এ ঘটনায় ডাক্তার দম্পতি সোনারগাঁও থানায় মামলা দায়ের করেন। এই মামলা দায়েরের ভিত্তিতে আমরা বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে তাদেরকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হই।