স্টাফ রিপোর্টারঃ যুবলীগের নামধারী ক্যাডার শাহাদাত গ্রেফতারের পর প্রকাশিত সংবাদ প্রসঙ্গে ফতুল্লা থানা যুবলীগের সভাপতি মীর সোহেলের দাবি, শাহাদাত যুবলীগের কেউ নয়, তার কোন পদ পদবীও নেই। এছাড়া এ নামে কেউ আমার সাথে রাজনীতিও করেনা। কোন মিছিল,মিটিংয়েও আসেনি। শাহাদাত গ্রেফতারের পর আমাকে জড়িয়ে যে সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে এই সংবাদের সাথে আমার কোন সম্পৃক্ততা নেই। এছাড়া শাহাদাত জাতীয় শোক দিবসে বঙ্গবন্ধু,সাংসদ শামীম ওসমান এবং আমার ছবি ব্যবহার করে যে ফেষ্টুন সাটিয়েছে সে ব্যাপারেও আমি অবগত ছিলাম না। মীর সোহেলের দাবি, অপরাধী আমার কর্মী হতে পারে না। আমি সন্ত্রাস, মাদক কিংবা কোন অপরাধের রাজনীতিতে বিশ্বাসী নই। শাহাদাতের সাথে আমাকে জড়িয়ে যে সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে আমি তার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। পাশাপাশি যুবলীগের নাম ব্যবহার করে কেউ কোন অপরাধের সাথে সম্পৃক্ত থাকলে তাকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে সোর্পদ করার অনুরোধ জানাচ্ছি।
অপরদিকে, ফতুল্লা ইউনিয়ন ১,২,৩ নং ওয়ার্ড যুবলীগের সাধারন সম্পাদক শেখ মোঃ শাহিন জানিয়েছে, শাহাদাত আনোয়ার নামে আমার ওয়ার্ডে কোন যুগ্ম সম্পাদ নেই। শাহাদাত স্বঘোষিত যুবলীগ নেতা। এছাড়া ফেষ্টুন সাটানোর ব্যাপারেও আমরা কিছু জানি না। আমরা শাহাদাত ওয়ার্ড যুবলীগের কেউ না। আমার তার অপরাধের দায় কাঁধে নিবনা। অপরাধীরা যুবলীগের কর্মী হতে পারে না।

প্রসঙ্গত, গত শুক্রবার ভোর রাতে দাপা সামাদ ডাক্তারের বাড়ির সামনে থেকে চোরাই চাউল,মিটার ও ত্রিপলসহ যুবলীগের নামধারী ক্যাডার শাহাদাতকে তিন সহযোগীসহ গ্রেফতার করেছে ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশ।