নিজস্ব প্রতিবেদকঃ প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নুরুল হুদা বলেছেন, আগে একটি লোক আরেকটি লোকের ভোট দেয়ার সুযোগ থাকলেও এখন আর সে সুযোগ থাকবেনা। কারণ ছবিসহ হাতে স্মার্ট কার্ড থাকবে। ২৬ থেকে ২৭টি সেবা এই কার্ডের মাধ্যমে আপনারা পাবেন। স্মার্ট কার্ড আমাদের নির্বাচনকে সুষ্ঠু করার উদ্দেশ্যে বাস্তবায়ন হবে।
রোববার দুপুর সাড়ে ১২টায় নারায়ণগঞ্জ ক্লাবে জাতীয় পরিচয়পত্রের উন্নত প্রযুক্তি নির্ভর স্মার্ট কার্ড বিতরণ কার্যক্রমের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
সিইসি বলেন, আগে মোবাইলের মাধ্যমে সন্ত্রাসীদের অবস্থান নিশ্চিত করতে হতো। কিন্তু এখন স্মার্ট কার্ডের মাধ্যমে যেকোনো সন্ত্রাসীর সকল তথ্য আমরা পেতে পারি। আগে একজন অপরাধীর স্থানে অন্য মানুষ ৭ বছর জেল খেটেছে বা অন্য অপরাধী গ্রেফতার হয়েছে। কিন্তু এখন আর তেমন অবস্থা সৃষ্টি হবেনা। জঙ্গী মোকাবেলাসহ সকল কাজে জাতীয় পরিচয়পত্র স্মার্ট কার্ড বিশেষ ভূমিকা রাখবে।
প্রধান নির্বাচন কমিশনার বলেন, ‘‘দেশের ৪৬০টি স্থানীয় নির্বাচন, দুটি জাতীয় সংসদ নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে হয়েছে। কোনো বিরূপ প্রতিক্রিয়া বা সন্দেহ প্রকাশ পায়নি। আমরা সক্ষম হবো এবং আমরা প্রস্তুত আছি যে, রংপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচন প্রতিযোগিতামূলক হবে।’’
তিনি আরো বলেন, ‘‘চলতি বছরের ডিসেম্বর মাসের মধ্যে দেশে ৯ কোটি ৪০ লাখ নাগরিকদের হাতে এই স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র পৌঁছে দেওয়া হবে। ফ্রান্সের কোম্পানি অবার্থার টেকনোলজির সঙ্গে আমাদের চুক্তি ভালোভাবে সম্পন্ন না হওয়ায় আমরা একটু পিছিয়ে গেছি। এই কারণে কিছুটা বিলম্ব হয়েছে। এ ছাড়া চোখের আইরিশ ও টেইন ফিঙ্গার মেশিন প্রকিউরম্যান করতে দেরি হয়েছে। এখন সেটা প্রকিউর হয়ে গেছে। বিশ্ব ব্যাংকের সঙ্গে আমাদের যে চুক্তি রয়েছে, তার অধীনে আগামী এক মাসের মধ্যে এগুলো পেয়ে গেলে খুব দ্রæত স্মার্ট কার্ড বিতরণ করা হবে।’’
নারায়নগঞ্জ জেলা আঞ্চলিক নির্বাচনী কর্মকর্তা রকিব উদ্দিন মন্ডলের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের সচিব হেলালুউদ্দিন আহমদ, জেলা প্রশাসক মোঃ রাব্বি মিয়া, জেলা পুলিশ সুপার মঈনুল হক, র‌্যাব-১১ এর অধিনায়ক লেঃ কর্নেল কামরুল হাসান (পিএসসি), জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন অনুবিভাগের মহাপরিচালক ব্রিঃ জেঃ মোহাম্মদ সাইদুল ইসলাম, জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোহাম্মদ আতাউর রহমান, সদর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আব্দুর রশিদসহ নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের বিভিন্ন ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ও ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বাররা।
সদর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আব্দুর রশিদ জানান, উদ্বোধনের প্রথম দিন শহরের ২০ জন বিশিষ্ট ব্যক্তির মাঝে এ কার্ড বিতরণ করা হয়েছে। নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের ২৭টি ওয়ার্ডের পৌনে পাঁচ লাখ ভোটারের জন্য স্মার্টকার্ড ইতিমধ্যে নারায়ণগঞ্জ জেলা নির্বাচন অফিসে এসে পৌছেছে।