নিজস্ব প্রতিবেদকঃ দেশনেত্রী বেগম খালেদার নামে গ্রেফতারী পরোয়ারা জারির প্রতিবাদে পুলিশ ব্যাড়িকেড ফাকি দিয়ে মহানগরীতে মিছিল করেছে নারায়ণগঞ্জ মহানগর যুবদল।শুক্্রবার বিকাল ৩ টায় নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সামনে নেতাকর্মীরা জড়ো হতে শুরু হলে পুলিশ এসে ধাওয়া করে ছত্র ভংগ করে দেয়।এরপরে নেতাকর্মীরা পুরায় রামকৃষœ মিশনের সামনে একত্রিত হয়ে মিছিল শুরু করে মেট্রোহল ঘুরে পুনরায় আইন কলেজের সামনে এসে সংক্ষিপ্ত বিক্ষোভ সমাবেশ করে।সমাবেশ শেষে পুনরায় হকার মার্কেটের সামনে পুলিশ নেতাকর্মীদের ধাওয়া করে।

নারায়ণগঞ্জ মহানগর যুবদলের আহবায়ক মাকছুদুল আলম খন্দকারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সংক্ষপ্তি বিক্ষোভ সভায় বক্তব্য রাখেন নারায়ণগঞ্জ মহানগর যুবদলের সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক সানোয়ার হোসেন, যুগ্ম আহবায়ক মমতাজউদ্দিন মন্তু,আনোয়ার হোসেন আনু, মাসুদ রানা, রানা মুজিব,আক্তার হোসেন খোকন শাহ, জুয়েল প্রধান, জুয়েল রানা, সাগর প্রধান,ইসালউদ্দিন ইশা,বন্দর থানা যুবদলের সভাপতি আমির হোসেন,বন্দর উপজেলা যুবদলের সিনিয়র সহ সভাপতি নজরুল ইসলাম,আলী নওসাদ তুষার,কাজী সোহাগ, সিদ্ধিরগন্্জ থানা যুবদলের যুগ্ম সম্পাদক ইকবাল হোসেন,মনিরুজ্জামান পিন্টু,ডাঃমুসা প্রমুখ।

সভাপতির বক্তব্যে নারায়ণগঞ্জ মহানগর যুবদলের আহবায়ক সিটি কাউন্সিলর মাকছুদুল আলম খন্দকার খোরশেদ বলেন খালেদা জিয়ার মত একজন সিনিয়র সিটিজেন ও তিনবারের প্রধানসন্ত্রীর প্রতি সরকারের এমন আচরন অমানবিক। খোরশেদ আরো বলেন,দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নামে জিয়া অরফানেজ মামলায় নিয়মিত হাজিরা দেওয়ার পরেও আজ বাম দলের ডাকা হরতালের কারণে হাজির না হওয়ায় সময়ের আবেদন করার পরেও গ্রেফতারী পরোয়ানা জারী আইনের প্রতি অসম্মান করার সামিল বলে তিনি দাবী করেছেন। তিনি অভিলম্বে মহানগর যুবদলের যুগ্ম আহবায়ক মাসুদ রানার মুক্তির দাবী জানান।

আরো উপস্থিত ছিলেন মহানগর যুবদল নেতা নাজমুল কবীর নাহিদ, রিটন দে,আমির হোসেন, ইউনুছ খান বিপ্লব, আব্দুর রহমান, আল আমিন খান, মাহাবুব হাসান জুলহাস, রানা মুুন্সি, সরকার লিমন, মোঃ শহীদ, মোঃ মিঠু আহম্মেদ, ওসমান গনি, মুহিন আহম্মেদ রিপন, সরকার মুজিব, আল-মামুন, আকতার হোসেন অপু, সামছুল আলম, রাসেল মনির, আফতাব, জানে আলম দুলাল, গাজী সোহেল, আফতাবউদ্দিন, মেহদী হাসান রাজু, সিদ্ধিরগঞ্জ থানা যুগ্ম সম্পাদক মনিরুজ্জামান পিন্টু, জাহাংগীর আলম, নাদিম শিকদার, মোস্তাফিজুর রহমান বাহার,মোঃ ইব্রাহিম, মোঃমামুন মিয়া,রাসেদুল উসলাম রাব্বি,সুমন ভুইয়া,আক্তারুজ্জামান আক্তার, আসলাম হোসেন,মোঃসবুজ, নজরুল ইসলাম, মিজান, ফয়সাল মাহমুদ, মন্জু মিয়া, বন্দর থানা যুবদলের সোহেল খান বাবু, শাহীন আাহম্মেদ, হুমাযুন,এমারত,সোহেল,জামান,কবীর,সামছুল,আবদুল্লাহ,শীপন প্রমুখ।