নিজস্ব প্রতিবেদকঃ ল্যাবএইড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াত আইভীকে দেখতে গিয়েছিলেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

শুক্রবার সকাল ১০টার দিকে তিনি ল্যাবএইড হাসপাতালে যান। সেখানে কাদের আইভীর চিকিৎসার খোঁজখবর নেন এবং তার সঙ্গে কথা বলেন।

পরে ওবায়দুল কাদের আইভীর শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে সাংবাদিকদের বলেন, ‘আইভী মাইনর স্ট্রোক করেছিল। তার ব্রেনে হ্যামারেজ হয়েছে। তবে এখন ভয়ের কিছু নেই। সে আউট অব ডেঞ্জার।’ তিনি বলেন, ‘চিকিৎসকরা জানিয়েছেন আরো চার থেকে পাঁচ দিন তারা আইভীকে পর্যবেক্ষণে রাখবেন।’

এ সময় নারায়ণগঞ্জে শামীম ওসমানের সঙ্গে আইভীর লোকদের সংঘর্ষের বিষয়ে কোনো কথা বলতে চাননি ওবায়দুল কাদের। এরআগে গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের তিনতলায় চিকিৎসাধীন সাংবাদিক শরীফউদ্দিন সবুজ, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সম্পাদক ও জেলা পরিষদ সদস্য জাহাঙ্গীর আলমসহ আহতদের দেখতে গিয়ে মেয়র আইভী হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন। এরপর জরুরি ভিত্তিতে বিকেলে তাকে ঢাকার ল্যাবএইড হাসপাতালে আনা হয়।

পরে আইভীকে সিসিইউতে স্থানান্তর করা হয়। তার সমস্যা চিহ্নিত করতে একটি মেডিকেল বোর্ড গঠন করা হয়েছে বলে পরিবর্তন ডটকমকে জানিয়েছেন ল্যাবএইডের জনসংযোগ কর্মকর্তা সাইফুর রহমান লেলিন।

প্রসঙ্গত, শহরে হকার উচ্ছেদ নিয়ে উত্তেজনার মধ্যে গত ১৬ জানুয়ারি চাষাঢ়ায় আওয়ামী লীগের স্থানীয় এমপি শামীম ওসমানের সমর্থকদের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন মেয়র আইভীর সমর্থকরা। এতে মেয়র আইভী, সাংবাদিকসহ প্রায় শতাধিক ব্যক্তি আহত হন।