নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধিঃ দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া ও তারেক রহমায়ের বিরুদ্ধে পরিকল্পিত ও ষড়যন্ত্র মূলক সাজা ঘোষনার প্রতিবাদে মহানগরীতে বিক্ষোভ মিছিল করেছে নারায়ণগঞ্জ মহানগর যুবদলের নেতাকর্মীরা।বিকাল ৩ টায় আলাউদ্দিন খান ষ্টেডিয়াম থেকে নারায়ণগঞ্জ মহানগর যুবদলের নেতাকর্মীরা বিক্ষোভ মিছিল শুরু করে।মিছিল না.গঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের সামনে এলে পুলিশ দুই দিক থেকে অর্তকিত হামলা করে লাঠি চার্জ করে ৪ জন যুবদল কর্মী গ্রেফতার করে এবং এসময় মহানগর বিএনপি নেতা নুরুল হক চৌধুরী দিপু, যুবদলের যুগ্ম আহবায়ক আক্তার হোসেন খোকন শাহ,মহানগর যুবদল নেতা ইউনুস খান বিপ্লব, আল-আমিন খান,জুলহাস ও রাসেল মনির আহত হয়।

প্রতিবাদ মিছিল শুরুর পূর্বে মহানগর যুবদলের সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক সানোয়ার হোসেনের সভাপতিত্বে সংক্ষিপ্ত পথ সভায় নারায়ণগঞ্জ মহানগর যুবদলের আহবায়ক মাকছুদুল আলম খন্দকার খোরশেদ বলেন, আইন ও আদালতের প্রতি পূর্ণ আস্থা রেখে বলতে চাই আইন সবার জন্য সমান হবে সংবিধানে এমন নিশ্চয়তা দেয়ার পরেও দেখা যায় আইন সবার জন্য এক নয়।খালেদা জিয়াই তার জলন্ত প্রমান।ফকরুদ্দিন-মঈনুদ্দিন সরকারের সময় বেগম খালেদা জিয়া ও শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে দুদক সম পরিমান মামলা দায়ের করেছিলো। আওয়ামী লীগ সরকার গঠনের পরে শেখ হাসিনা ও তার দলীয় নেতাকর্মীদের মামলা গুলো কর্পূরের মত উড়ে গেলেও বেগম খালেদা জিয়া,তারেক রহমান সহ বিএনপির নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মামলার সংখ্যা চক্রবৃদ্ধি হারে বেড়েছে।তারই ধারাবাহিকতায়ই ৮ ফ্রেরুয়ারীর রায় ঘোষিত হয়েছে।তিনি বলেন খালেদা জিয়ার জেল বাংলাদেশের ইতিহাসে এক কলংক তিলক।আওয়ামী লীগ পুনরায় বিনা ভোটে ক্ষমতায় যাওয়ার জন্য দেশনেত্রীকে জেল আমাদের উপড় নিপীড়ন করছে।

তিনি সরকারের নিপীড়ন পাক হানাদারের কথা মনে করিয়ে দেয় বলে নেতাকর্মীদের অনির্বাচিত সরকারের বিরুদ্ধে পাড়া মহল্লা থেকে শুরু করে রাজপথে পর্যন্ত অহিংস ও শান্তিপূর্ন গণ প্রতিরোধ গড়ে তোলার আহবান জানান।তিনি সরকারী দলের ফাদে পা না দিতে সর্তক থাকার অনুরোধ জানান। খোরশেদ আরো বলেন,সরকারকে মনে রাখতে হবে এই সরকারই শেষ সরকার নয়।

তিনি নারায়ণগঞ্জ,সিদ্ধিরগঞ্জ,রুপগঞ্জ,ফতুল্লা,সোনারগায়ে ভৌতিক মামলায় নেতাকর্মীদের আসামী করা ও হয়রানীর তীব্র নিন্দা জানান।অবিলম্বে নজরুল ইসলাম আজাদ, এড.সাখাওয়াত খান,মাসুকুল ইসলাম রাজীব,মহানগর যুবদল নেতা ইকবাল হোসেন,কাউন্সিলার ইস্্রাফিল, কাউন্সিলার কামরুজ্জান বাবুল.এড.আনোয়ার প্রধান,বাবুল প্রধান,ডাঃশাহীন.মোহাম্মদ হোসেন কাজল,মেয়র বাদশাহ সহ গ্রেফতারকৃত সকল নেতাকর্মীর মুক্তি দাবী করেন।
মিছিলে আরো উপস্থিত ছিলেন বিএনপি নেতা নুরুল হক চৌধুরী দিপু, যুবদলের যুগ্ম আহবায়ক আক্তার হোসেন খোকন শাহ,মহানগর যুবদল নেতা ইউনুস খান বিপ্লব, আল-আমিন খান,মাহাবুব হাসান জুলহাস,আল-মামুন,আকতার অপু,ডা,মুসা,মন্জু মিয়া আফতাব, রাসেল মনির সহ শতাধিক নেতাকর্মী।