নিজস্ব প্রতিবেদকঃ  নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সাংসদ এ কে এম শামীম ওসমান বলেছেন,এখন ভালো সময়ে অনেকে দলে নাম লেখাইতে আসবো৷ কয়েকদিন পর বিএনপির নেতারা লাইন ধরবে আওয়ামী লীগে জয়েন করার জন্য৷ বিএনপির দল নষ্ট হয়ে গেছে৷ বিএনপির নেতারা পত্রিকায় নেত্রীর জন্য কান্দে আর ওইদিকে লাইন ধরে আওয়ামী লীগে ঢোকার জন্য৷

মঙ্গলবার (২০ মার্চ) বিকেলে বক্তাবলী সিনিয়র ইসলামিয়া মডেল মাদ্রাসা মাঠে আয়োজিত এক কর্মীসভায় নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সাংসদ এ কে এম শামীম ওসমান নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্য এসব কথা বলেন৷

শামীম ওসমনার বলেন, বিএনপির লোকেদের জন্য দরজা খোলা আছে৷ আসেন যোগদান করেন৷ আমার চেয়ারটাতে আপনারা বসেন৷ তবে তাদের এসে পেছনে দাড়াতে হবে৷ সবার জন্য দরজা খোলা৷ তার মানে এইটা না আমার ত্যাগী নেতাকর্মীরে রাইখা আপনাদের আগে বসতে দিমু৷ আগে আমার রক্তের মানুষ যারা তাদের বসতে দিমু৷

এ সময় তিনি আরও বলেন, আমারে দেইখা মানুষ ভোট দিবো না৷ আমি ভালো মানুষ না৷ ভোটটা দিবে আপনার চেহারা দেইখা৷ আপনাদের কাছে আমার অনুরোধ থাকবে আপনারা এলাকায় সংগঠনটারে একটু চাঙ্গা করেন৷ আমি কিচ্ছু করতে পারবো না৷ আপনাদেরই করতে হবে৷ ধরেন, আমি অনেক ভালো কাজ করতাছি কিন্তু নাজিম ভাই যদি এলাতার মানুষের সাথে খারাপ ব্যবহার করে, কাউরে যদি মাইর দিয়া দেয়৷ তাহলে ঐ লোকটা চিন্তা করবো শামীম ওসমান পাশ করলে নাজিম শক্তিশালী হইবো৷ তাইলে শামীম ওসমানরে ভোট দেওয়া যাইবো না৷ এইরকম হাইব্রীড লোকগুলারে দূরে রাইখেন৷ আমরা মানুষের জন্য ভালো করতে চাই৷ মানুষের ভালো করার নিয়ত রাইখা কাজ করেন৷ আল্লাহ যে ক্ষমতা দিছে সেইটার ভালো ব্যবহার করেন৷ আমরা এমনে কাজ করলে ৩০ সালে আমরা ধনী দেশ হমু৷ এই এলাকার যে ১১টা সেন্টার আছে সেই সেন্টারগুলোতে আমি কমিটি গঠন করবো৷ এদের মধ্যে কিছু থাকবেন এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ৷ যাদের চেহারা দেইখা মানুষ সম্মান করে৷ বাকি থাকবে আমার ত্যাগী নেতাকর্মীগণ৷ নারী-পুরুষ ভেদাভেদ নাই৷

বক্তাবলী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব আফাজ উদ্দিন ভূঁইয়ার সভাপতিত্বে ও আনোয়ার হোসেনের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ফতুল্লা থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব এম সাইফউল্লাহ বাদল, সাধারন সম্পাদক আলহাজ্ব মো. শওকত আলী৷ অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ফতুল্লা থানা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি কেরামত আলী মাদবর, সাধারন সম্পাদক মো. কামরুল ইসলামের ৫নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি বাছেদ সরদার, বক্তাবলী ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি ফখরুদ্দিন, যুবনেতা মাহবুবুল হাসান, দুবাই শাখা পরিষদের আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক মো. রনি, বক্তাবলী ইউনিয়ন যুবলীগ নেতা দে‌লোয়ার হো‌সেন দিপু, মো. ইয়াদ উদ্দিন, মো. মোতালেব, খোরশেদ মাষ্টার, যুবনেতা দেলোয়ার হোসেন, আতাউর রহমান প্রধান, শফিক মাহমুদ টিটু ও আওয়ামী লীগের অন্যান্য সংগঠনের বিভিন্ন নেতাকর্মীবৃন্দ৷