ফতুল্লার বুড়িগঙ্গা নদীতে যাত্রীবাহী লঞ্চের ধাক্কায় গরু বোঝাই একটি ট্রলারডুবির ঘটনা ঘটেছে। শনিবার মাগরিবের আজানের সময় ফতুল্লা লঞ্চঘাটস্থ বুড়িগঙ্গা নদীতে এ ঘটনা ঘটে।। স্থানীয় লোকজন ডুবে যাওয়া ট্রলারে থাকা ৩১টি গরুর মধ্যে ৫টি উদ্ধার করেছে।এ সময় পুলিশ যাত্রীবাহী লঞ্চটি আটক করেছে। এ ঘটনায় ৫ জন আহত হয়েছে। 

ডুবে যাওয়া ট্রলার মালিক আব্দুল মান্নান জানান, টাঙ্গাইল হতে সিরাজ ব্যাপারীর ৩১টি গরু নিয়ে ফতুল্লা ডিআইটি গরুর হাটে আসার পথে ফতুল্লা ঘাটে ভেরার সময় সদরঘাট হতে আসা বরিশালগামী এমভি ধুলিয়া-১ নামক একটি লঞ্চ ফতুল্লা লঞ্চঘাটে যাত্রী নেয়ার জন্য ভেরার সময় সংঘর্ষে গরু বোঝাই ট্রলারটি ডুবে যায়। এসময় স্থানীয় লোকজন নদীতে সাঁতরিয়ে পানির নিচে তলিয়ে যাওয়া ট্রলার থেকে ৫টি গরু উদ্ধার করতে সক্ষম হয়। তবে এখনও ট্রলারসহ ২৬টি গরু উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি।

নারায়ণগঞ্জ বিআইডব্লিউটিএ’র উপ-পরিচালক (দায়িত্বপ্রাপ্ত) বাবুল আল বদ্ধ জানান, লঞ্চের ধাক্কায় গরু বোঝাই ট্রলার ডুবির ঘটনা ঘটেছে। পুলিশ লঞ্চটি আটক করলেও যাত্রীদের কথা চিন্তা করে সকলের সঙ্গে আলোচনা করে লঞ্চের মালিকপক্ষের লোক থানায় রেখে লঞ্চটি ছেড়ে দেয়া হয়েছে।

ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশের ওসি মঞ্জুর কাদের জানান, ট্রলার ডুবির ঘটনার পর লঞ্চটি আটক করা হয়। পরে লঞ্চে থাকা যাত্রীদের কথা চিন্তা করে মালিকপক্ষের প্রতিনিধিকে রেখে লঞ্চটি ছেড়ে দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। গরুর ব্যাপারীর ক্ষতিপূরণ আদায়ের চেষ্টায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।