নিউজ প্রতিদিন: সুগন্ধা খাবার হোটেল, সুগন্ধা বেকারী, সুগন্ধা মিষ্টি, সুগন্ধা কেক হাউজসহ বাণিজ্যিক জেলা নারায়ণগঞ্জের ছোট্ট শহরে দিনের পর দিন ভোক্তা সাধারণের সাথে নানাভাবে প্রতারণা করে যাচ্ছে প্রতিষ্ঠানটি ৷ ভোক্তা সাধারণের চোখের আড়ালে এঁটো খাবার পরিবেশনসহ নানাভাবে প্রতারণা করে অসংখ্যবার ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে জরিনানা দিয়ে মুচলেকা দিলেও সংশোধন হয় নাই সুগন্ধা। আরো ভয়ংকর পন্থায় প্রতারণা অব্যাহতভাবে চালিয়ে যাচ্ছে বলে এমন অভিযোগে অভিযান চালিয়ে হাতেনাতে ধরা পরে প্রতিষ্ঠানটি।

নারায়ণগঞ্জ শহরে প্রথম সারির অভিযাত বেকারী হিসেবে পরিচিতি সুগন্ধা বেকারী। কিন্তু বাহির দিয়ে চাকচিক্য ডেকোরেশনের মধ্য দিয়ে নগরীর বিভিন্ন প্রান্তে শো-রুম গুলো মানুষের চোখে অভিযাত হিসেবে গড়ে তোলা হলেও মাঝে মধ্যে ভোক্তা অধিকার বা ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে ভেতরে সদরঘাটের চিহ্ন ফুটে ওঠে। আর সেই অপরাধে প্রতিষ্ঠানটিকে প্রায়শঃই জরিমানা গুনতে হয়।

মঙ্গলবার (১৪ জুলাই) ও এর ব্যতিক্রম ঘটেনি। অনিয়ম ও নোংরা পরিবেশে খাদ্য উৎপাদন করায় এদিন সকালে ৪ লাখ জরিমানা গুনতে হয়েছে নগরীর গলাচিপা কলেজ রোডে অবস্থিত প্রতিষ্ঠানটির কারখানাকে।

জেলার ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর অভিযান চালিয়ে ওই অর্থদন্ডে দন্ডিত করেন। অভিযানটি পরিচালনা করেন ভোক্তা অধিকারের সহকারী পরিচালক মো.সলিমুজ্জামান।

অভিযান পরিচালনাকালে একই সাথে কেক তৈরির কাচামালের সাথে দীর্ঘদিন ফ্রিজের ভিতরে মাছ রেখে দেয়ার চিত্র খুজে পায়। আগামী ২০ জুলাই উৎপাদনের তারিখ লিখে হাজারো লাচ্ছা সেমাইয়ের প্যাকেট জব্দ করা হয় ৷ একই সাথে ভোক্তা সাধারণের বিশাল কর্মকাণ্ডের ঘটনা অকপটে স্বীকার করে সুগন্ধার কর্ণধার নূরুল হক।

তিনি জানান, শহরের গলাচিপার ৯নং কলেজ রোডে অবস্থিত সুগন্ধা বেকারিকে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের ৩৭, ৪২, ৪৩, ৪৫ ও ৫৯ ধারা অনুযায়ী এ জরিমানা করা হয়।

প্রসঙ্গত, এর আগে এই প্রতিষ্ঠানের অভিযাত কেকের ভেতর থেকে আস্ত এক তেলাপোকা পেয়েছিল এক খদ্দের। সে সময় সেটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে ব্যপক আলোড়ন সৃষ্টি হয়েছিল।

এমন অপকর্মের ঘটনায় ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান পরিচালনাকালে এলাকার উপস্থিত অনেকেই ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন,  সুগন্ধা বেকার,  হোটেল কিংবা মিষ্টির দোকান থেকে প্রতিনিয়তঃ প্রশাসনের বিভিন্ন সংস্থার কর্মকর্তাদের বিনামূল্যে খাবার সরবরাহ কিরা ছাড়াও নিয়মিত মাসোহারা প্রদান করায় এমন অপরাধের বিরুদ্ধে সচরাচর ব্যবস্থা গ্রহণ না করায় প্রতিদিন ভোক্তাদের সাথে প্রতারণা করছে এই প্রতিষ্ঠানটি । আর আজ মংগলবার দুপুরে এমন অভিযানের খবরে এলাকায় অনেকেই সাধুবাদ জানিয়েছেন অভিযানকারী সংস্থার কর্মকর্তাদের ।