মানবন্ধনের পর বন্দরে আযহারির মাহফিল বন্ধ

253

নিউজ প্রতিদিন: নারায়ণগঞ্জের বন্দরে ওয়াজ মাহফিলে বয়ান করার কথা ছিলো আলোচিত সমালোচিত বক্তা ড. মিজানুর রহমান আযহারীর।

বুধবার (১৮ ডিসেম্বর)বন্দর উপজেলার মুছাপুরা ইউনিয়নে তার আসার কথা থাকলেও তাকে ঘিরে উত্তেজনা সৃষ্টি হওয়াতে তার আগমনের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা জারি করায় তিনি আসেননি।

এর আগেও তাকে নিয়ে বিভিন্ন জেলায় উত্তেজনা সৃষ্টি হওয়াতে তার পূর্ব নির্ধারিত ওয়াজ মাহফিল পন্ড হয়ে যায়। এবার সেই ধারাবাহিকতায় তামিম বিল্লাহর নেতৃত্বে সুন্নি সম্প্রদায় মিজানুর রহমান আযহারির আগমনের বিরোধিতা করে এবং তাকে ‘ফেরাউনের ভাতিজা’ আখ্যায়িত করে ঝাড়– মিছল বের করে। এরপর থেকেই শুরু হয় উত্তেজনা।

বন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, যেহেতু তাকে নিয়ে অনেক উত্তেজনার সৃষ্টি হয়েছে তাই আইনশৃঙ্খলা রক্ষার্থে ওয়াজের আয়োজকদের বলেছি তাকে না আনার ব্যাপারে। তবে ওয়াজের বিষয়ে কোনো নিষেধাজ্ঞা নেই। ওয়াজ চলবে কিন্তু মাওলানা মিজানুর রহমানের আসার ব্যাপারে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। আইনশৃঙ্খলা রক্ষা করা আমাদের দায়িত্ব।

মঙ্গলবার মাওলানা মিজানুর রহমান আযহারীর আগমন ঠেকাতে তার বিরুদ্ধে ঝাড়ু মিছিল করেছে সুন্নি জামায়াত। সোশ্যাল মিডিয়ায় পক্ষে-বিপক্ষে লেখালেখিও হয়েছে। তবে তার আগমনকে স্বাগত জানিয়ে আযহারীভক্তদের মাঝে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা দেখা দিয়েছিল। নিষেধাজ্ঞায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন তারা।

সম্প্রতি দেশের কয়েকজন ইসলামী বক্তার মধ্যে মিজানুর রহমান আযহারী বেশ জনপ্রিয় হয়েছেন। তবে তাকে নিয়ে নানা বিতর্কও চলছে। বিভিন্ন মাহফিলে যুদ্ধাপরাধে সাজাপ্রাপ্ত বাংলাদের জামায়েত ইসলামী দলের নেতা দেলোয়ার হোসেন সাঈদীর প্রশংসায় বক্তব্য দিতে দেখা গেছে। এছাড়াও ওয়াজে বিভিন্ন শব্দ ও ভাষার ব্যবহার নিয়েও তার সমালোচনা করা হয়েছে।

এদিকে জানা গেছে, বন্দরের মুছাপুর পশ্চিমপাড়া জামে মসজিদ যুব সংগঠন ও এলাকাবাসীর উদ্যোগে তাফসিরুল কুরআন ওয়াজ ও দোয়ার মাহফিলের আয়োজন করা হয়েছে। এই ওয়াজে মিজানুর রহমান আজহারীর আসার কথা ছিল। ওয়াজ মাহফিলে অতিথি হিসেবে রাখা হয়েছে দুর্ধর্ষ রাজাকার রফিক চেয়ারম্যানের ছেলে মুছাপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মাকসুদ হোসেন।